ঢাকা বিভাগ

ঢাকার মিরপুরে বিষধর পাহাড়ী সাপ উদ্ধার

নাম তার স্পট টেইলড পিট ভাইপার, বাংলায় বলে সবুজ বোড়া সাপ। বাংলাদেশে প্রধানত তিনটি অঞ্চলে দেখা যায় এ সাপ। পার্বত্য চট্টগ্রামসহ বৃহত্তর চট্টগ্রাম, বৃহত্তর সিলেট ও সুন্দরবনে। দেখতে যতই সুন্দর হোক না কেন, বিষধর এ সাপের কামড়ে মানুষের মৃত্য না হলেও সময়মতো চিকিৎসা না হলে অঙ্গহানি ঘটতে পারে। সেই সাপের …

Read More »

গাজীপুরের বেইজ ক্যাম্পে অ্যাডভেঞ্চার ক্যাম্পিং

অনেকদিন ধরেই গাজীপুরে অবস্থিত বেইজক্যাম্পে যাওয়ার ইচ্ছা ছিলো। অ্যাডভেঞ্চার একটিভিটি দিয়ে ভরপুর এ রিসোর্টটা বাংলাদেশের বাকি সব রিসোর্টের থেকে আলাদাই বলতে হবে। এখানে যাওয়ার মতো দলবল না পাওয়াতে যাওয়া হচ্ছিলোনা। অবশেষে নিয়াজ ভাই তার শপ ট্রিপমেটের জন্য ওইখানে একটা রিট্রিটের আয়োজন করতে চাইলেন। সেই সাথে ভালো ছাড়ও পাওয়া গেলে। দেরী …

Read More »

হুট-হাট করে নারায়ণগঞ্জে ক্যাম্পিং

শীতকালটা শেষ হয়ে যাচ্ছে। লম্বা-চওড়া যতগুলো ক্যাম্পিংয়ের চিন্তা করেছিলাম সেগুলো বাস্তবায়নের কোন সম্ভাবনাই দেখছিনা। এর মধ্যে জুয়েল প্রস্তাব দিলো নারায়ণগঞ্জের লাঙ্গলবন্ধে একটা ক্যাম্পিং করা যায়। ঢাকা থেকে খুব কাছে, সেখানে মাসুদ রানা ভাই একটা ক্যাম্পিং সাইট বানানোর চিন্তা করছে। আপাতত জায়গাটা খালি পড়ে আছে, আমাদেরকে ওপেন দাওয়াত দিয়ে রেখেছেন। যাবো …

Read More »

CNS Arena তে ক্যাম্পিং ও লক্ষণসাহার জমিদার বাড়ি দর্শন

বেশ কদিন ধরে বাপ্পী আমাকে গুতাচ্ছে, নরসীংদির লক্ষণ সাহার জমিদার বাড়িতে যাওয়ার জন্য। নানা ব্যস্ততায় হচ্ছিলোনা। অবশেষে ঠিক করলাম সেই প্রোগ্রাম। সাধাসিধে ট্রিপ, বৃহস্পতিবার রাতে স্কুটার নিয়ে চলে যাবো আতলাপুর, রাতে সেখানে ক্যাম্পিং করে পরের দিন সকালে জমিদার বাড়ি দেখে ঢাকায় ফিরে আসবো।মোট ৮ জন হলাম আমরা। তিন মোটর সাইকেলে …

Read More »

শরৎ এর পয়গাম নিয়ে কাশবন

শরৎকাল বলতেই মাথায় যে জিনিসটা সবচেয়ে আগে কাজ করে তা হল কাশবন। কাশবন মানেই বাঙালির মাথায় ও মননে ঘোরে দুর্গাপুজোর পদধ্বনি। বই পুস্তকের ভাষায় বলতে গেলে কাশফুল মূলত একটি বহুবর্ষজীবী ঘাস। মূলত বালুকাময় নদীর তীরে শরৎকালের ফুটে এই শ্বেত শুভ্র কাশফুল। তবে আধুনিক নগরায়নের ফলে এর কিছুটা চারিত্রিক পরিবর্তন হয়েছে …

Read More »

স্কুল পালানো ছেলের ডায়েরি: গোয়ালদি গ্রামে

তখনকার পানামে ছিল না এত নিরাপত্তা। তাই আজিজ ভাইয়ের ঘর বাড়ির মতই ছিল পানাম নগর। এক কোণার বিল্ডিং নিয়ে গিয়ে তিনি ছলটু ধরালেন। গাজার কটু গন্ধের সাথে পরিচয় আগে কোন দিন ছিল না বিধায় বুঝতে পারলাম না উনি কি করছেন। শুধু বুঝলাম এইটা হয়তো অন্য টাইপের সিগারেট। গুরুজনের সামনে টানায় …

Read More »

স্কুল পালানো ছেলের ডায়েরি: হারিয়ে যাওয়া শহর

তখনও যাত্রাবাড়ি ফ্লাই ওভার হয়নি। চৌরাস্তায় ছিল চতুর্মুখি ফুট ওভার ব্রিজ। খাওয়া পর্ব শেষে বললাম দাদু ভাইকে সোনারগাঁ যাব আমার খালা থাকে সেখানে, কি ভাবে যাব৷ দাদু ভাই হেসে বললেন ওই যে ওপারে গিয়ে দাঁড়াও মোগরাপাড়ার বাস পাবা৷ ওইটা চইড়া যাও৷ মোগড়াপাড়া থেকে তো কাছেই৷ সোনারগাঁয়ে কুন জায়গায় তুমার খালার …

Read More »

স্কুল পালানো ছেলের ডায়েরি: শুরুর গল্প

স্মরণীয় ভ্রমণ বলতে যা বুঝায় সেইটা হয়তো কোন সংজ্ঞায় সংজ্ঞায়িত করতে পারবো না। আমার কাছে সব ভ্রমণই স্মরণীয়৷ কারণ কিছু মানুষ ঘুরে বিশ্বকে দেখতে, জ্ঞান অর্জন করতে৷ তাদের ঘুরার কোন শেষ নেই৷ তারা হয়তো ভোরের ওই ঘাসের ডগায় বিন্দু বিন্দু জমে থাকা শিশির কণার স্থানচ্যুত হয়ে মৃত্তিকার সাথে মিশে যাওয়ার …

Read More »

ঐতিহ্যের সন্ধানে নরসিংদীতে একদিন: লক্ষণ সাহার জমিদার বাড়ি

ভৈরব-সিলেটগামী হাইওয়ের পাশ ঘেষের ডাঙ্গা রাস্তা দিয়ে হেলেদুলে চলছে আমাদের সিএনজি ডাঙ্গা বাজারের উদ্দ্যেশে। ডাঙ্গা বাজার থেকে খুব কাছেই লক্ষণ সাহার জমিদার বাড়ি। আমরা এখন আছি নরসিংদীর পলাশ উপজেলায়। প্রাচীন ইতিহাস ও ঐতিহ্যের টানে এসে পড়েছি আমরা কতটা দূর এই যান্ত্রিক শহর ছেড়ে। তৎকালীন সময়ে এই এলাকাটি ছিল দেবোত্তর হিসাবে। …

Read More »

ঐতিহ্যের সন্ধানে নরসিংদীতে একদিন: ভাই গিরিশচন্দ্রের বাড়ি

সময়কে বেধে রাখা যায় না কোন ঘড়িতে। সে তো চলে যায় বহমান নদীর মত। সময়ের স্রোতে রেখে যায় স্মৃতি। যা অনেক দিন পর রোমান্থন করে মানুষ আনন্দ পায়। সে রকম কিছু স্মৃতি খুড়তে কি ফিরে গেলাম দেড় বছর আগের কোন দিনে? সে সময় ছিল অস্থির সময়। তখন জুয়েল রানা হয়নি …

Read More »