চট্টগ্রাম বিভাগ

মারায়নতং চূড়ায় অতৃপ্ত সূর্যোদয়: চূড়ায় পদার্পণ

বেশ ছোট একটা পাড়া, এখানে মুরংদের বসবাস। ঘরগুলো টং ঘরের মতো। প্রত্যেকটা ঘরের নিচেই ফাকা জায়গা রয়েছে যেখানে শুকনো কাঠ জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করার জন্য সংরক্ষণ করা হয় এবং গবাদিপশু রাখা হয়। গরু, শুকর, ছাগল দেখলাম আশেপাশে চড়ে বেড়াচ্ছে। পাড়া থেকে উপরের দিকে উঠে যাওয়া শুরু করতেই আকাশের রঙ পরিবর্তন …

Read More »

হাজারী খীল বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য: জঙ্গলে ভোর হলো

সন্ধ্যার আগেই তৈয়ব ভাই আমাদের তাঁবুগুলো পিচ করে দিলেন। আমাদের ক্যাম্পসাইট ছিল ট্রি অ্যাক্টিভিটির জায়গাতেই। সন্ধ্যায় সবাই মিলে সেই অফিস ঘরটায় বসে আড্ডা দিচ্ছিলাম। ফখরুল ভাই, ফাসকা, সেতু দা দাবা খেলা শুরু করলেন। দাবার বোর্ড, গুটি নিয়ে আসছিলেন ওনারা বাসা থেকে। সেইরকম খেলা হচ্ছিলো। এর মাঝে কাদের যেন মুড়ি মাখা …

Read More »

হাজারী খীল বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য: মন জুড়ানো ট্রেইল

মুশতাক যখন বললো, হাজারী খীল ক্যাম্পিংয়ে যাবা? এক কথায় রাজি হয়ে গেলাম। বনজঙ্গলে তাঁবুতে রাত কাটানোর ব্যাপারটা আমার বরাবরই খুব থ্রিলিং মনে হয়। বছরতিনেক আগে সিলেটের খাদিমনগর জাতীয় উদ্যানে একবার ক্যাম্পিং করা হয়েছিল। তখন অবশ্য আমরা তিনজনই ছিলাম। এইবার যাচ্ছি গ্রুপে। এক্সট্রিম ট্রেকার অফ বাংলাদেশ (ইটিবি) এর একটা ক্যাম্পিং ইভেন্ট …

Read More »

সৈকতের কাছের রিসোর্ট কক্সবাজার সার্ফ ক্লাব

সাধারণত কক্সবাজার গেলে সবাই সি ভিউ রিসোর্টে থাকতে চায়। কিন্তু এসব রিসোর্টের থাকার খরচও কম নয়। বিভিন্ন কারণে কক্সবাজার আমার যাওয়া হয়। এবারের ভ্রমণের উদ্দেশ্য ছিলো ছেলেকে প্রথমবারের মতো সমুদ্র সৈকত দেখানো। ছোট বাচ্চা নিয়ে বেশি ঘোরাগুরি করবোনা বলেই সৈকতের কাছের একটা হোটেল খুঁজছিলাম। কক্সবাজার সার্ফিং ক্লাব ছবি তাদের ফেইসবুক …

Read More »

মারায়ন তং চূড়ায় অতৃপ্ত সূর্যোদয়: পাহাড়ের ভাজে ভাজে

লাইনঝিরিতে প্রায় ৩০ মিনিট পার হয়ে গেলো চালক-পুলিশের লুকোচুরিতে। শেষ পর্যন্ত জিপ সমিতির লোকজনকে ফোন করে পুলিশের কাছে ক্ষমা চেয়ে চাবি উদ্ধার হলো। জিপ চলা শুরু করলো আবারো, দুইপাশে সবুজের আচ্ছাদন। এই রাস্তাটাতে ব্যাপকভাবে সামাজিক বনায়ন চোখে পড়লো। দুইপাশে বনায়ন করা হয়েছে যার ফলে সারি সারি গাছের উর্ধ্বমুখী চাহনি। আমরা …

Read More »

মারায়ন তং চূড়ায় অতৃপ্ত সূর্যোদয়: যেতে যেতে পথে

বাস যখন চলা শুরু করলো তখন ও বৃষ্টির অবিরাম জলধারা ঝরছিলো। আস্তে আস্তেই বাস চলছে আমরা নিজেদের মধ্যে গল্প করছি সাথে সাথে বাসে দাড়ানো যাত্রীও উঠছে। যাত্রাবাড়ি পার হতেই দাড়ানো যাত্রীতে ভরে গেলো বাস। আমরা বুঝলাম লোকাল বাস মানে কিছুটা মেনে নিতেই হবে। আতঙ্কিত হচ্ছিলাম সারা রাস্তা যদি এরকম যাত্রী …

Read More »

আমার প্রথম সমুদ্র দেখা (১৯৭৬)

আমার প্রথম সমুদ্র দেখার স্মৃতি ১৯৭৬ সনে। লেখাটাতে আমার সমুদ্র দেখার স্মৃতির সাথে তখনকার কক্সবাজারের প্রাকৃতিক পরিবেশ আর অবস্থা নিয়েও কিছু তথ্য থাকবে… ১৯৭৬ সন, তখন থাকি কুমিল্লাতে। আব্বার বদলীর চাকরির সুবাদে ঘুরার উপরে থাকতাম। কুমিল্লাতে মোটামুটি আড়াই তিন বছর থাকার পর আব্বা একদিন আইসা বলে… আমি কক্সবাজারে ট্রান্সফার হইছি, …

Read More »

মারায়ন তং চূড়ায় অতৃপ্ত সূর্যোদয় – যাত্রার গল্প

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে ১৩ সেপ্টেবর সারাদিন আলীকদম এলাকায়  থেমে থেমে বৃষ্টির সম্ভাবনা দেখাচ্ছে, আরো বিস্তারিত পর্যালোচনা করে দেখা গেলো দুপুর ১২ টার পর থেকে প্রতি এক ঘণ্টা অন্তর বৃষ্টির সম্ভাবনা। কিন্তু সন্ধ্যা ৬ টার পর থেকে বৃষ্টি থাকবেনা পরেরদিন ভোর ৫ টা পর্যন্ত। এরকমভাবে বৃষ্টি আর আবহাওয়া নিয়ে গভীর পর্যালোচনা ও …

Read More »

আলীকদমে আলীর খোঁজে: আলীর সুড়ঙ্গ

মারায়ন তং থেকে নেমে আমরা অটোতে উঠলাম। হঠাৎ সে কি ঝুম বৃষ্টি! ভাগ্যিস পাহাড় থেকে নামার সময় বৃষ্টি ছিল না। তাহলে একবারে স্লাইড করে নামতে হতো। অটো আবার আমাদের আলীকদম বাস টার্মিনালে নামিয়ে দিলো। ভাত, ডাল, মুরগী, আলু ভাজি আর কচুর ফুল দিয়ে খাওয়া হলো। কচুর ফুল খেতে কচুর লতির …

Read More »

আলীকদমে আলীর খোঁজে: তুক-অ-দামতুয়া

পরদিন খুব ভোরেই উঠে পড়লাম। আজকের প্ল্যান হচ্ছে, দামতুয়া ঝর্ণা ঘুরে ডিম পাহাড় দেখে সন্ধ্যার বাসে বাড়ির পথে রওনা দেয়া। যতো সহজে বললাম ব্যাপারটা আসলে এতো সহজ না। দামতুয়া যেতে আসতে ঘণ্টা পাঁচেক সময় লাগবে। কাজেই আমাদের ছয়টার মধ্যেই বের হতে হলো। পানবাজারের সেই হোটেলে চা-নাস্তা খেয়ে আমরা চান্দের গাড়িতে …

Read More »