বিশ্বের ২য় সর্বোচ্চ পর্বতে শীতকালীন সামিটের ইতিহাস রচিত

সারা বিশ্বে ৮,০০০ মিটারের চেয়ে বেশি পর্বতের সংখ্যা মাত্র ১৪ টি। এর মধ্যে বাকি তেরটিতেই শীতকালে আরোহন করা সম্ভব হয়েছিলো। বাকি ছিলো শুধু পৃথিবীর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পর্বত কে২। পাকিস্তানে অবস্থিত ৮৬১১ মিটার উচ্চতার এই পর্বতে এতদিন পর্যন্ত চালানো সব অভিযানই ব্যর্থ ছিলো। 

এত বছর শীতকালে অধরা ছিলো কেটু সামিট ছবি উইকিমিডিয়া

এই অসম্ভবকেই সম্ভব করলো নেপালী শেরপাদের ১০ সদস্য। ১৬ই জানুয়ারী পাকিস্তানের স্থানীয় সময় বিকেল ৫ টায় একসাথে ১০ সদস্যই আরোহণ করতে সক্ষম হলেন। এর ফলে রচিত হলো পৃথিবীর পর্বতারোহণের নতুন ইতিহাস। শীতকালে মানুষের পা পড়লো গড়উইন অস্টিন নামে খ্যাত এ পর্বতে। চূড়ায় পৌছানো ১০ জন হলেন:

১. নির্মল পূর্জা

২. গেলজি শেরপা

৩. মিংমা ডেভিড শেরপা

৪. মিংমা জি

৫. সোনা শেরপা

৬. মিংমা তেনজি শেরপা

৭. পেম চিরি শেরপা

৮. দাওয়া তেম্বা শেরপা

৯. কিলি পেম্বা শেরপা

১০. দাওয়া তেনজিং শেরপা

তবে চূড়ায় উঠতে পারলেও কীভাবে তারা নেমে আসবে তা এখনো জানা যায়নি। পৃথিবীর অন্যতম মৃত্যুপুরী এ পর্বতের মৃত্যুর ঘটনা বেশি ঘটে পর্বত থেকে নেমে আসার সময়।  পর্বতারোহণের চেষ্টা ও মৃত্যুর অনুপাতে পৃথিবীর ২য় ভয়ংকর পর্বত কেটু। অন্নপূর্ণা-১ পর্বতে এই অনুপাত ৩২%, তারপরই অবস্থান কেটুর যাতে এই অনুপাত ২৯%। এ তালিকায় পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বত মাউন্ট এভারেস্টের অবস্থান দশম (৬%)।

দুদিন আগেও অসম্ভব মনে হচ্ছিলো এই সামিট ছবি নির্মল পূর্জার ফেইসবুক

১৯৮০ সালে সালে শীতকালে এভারেস্ট আরোহণ করা সম্ভব হয়েছিলো। ১৯৮৬ সালে কাঞ্জনজঙ্ঘাতে শীতকালীন অভিযান সফল হয়। তবে ১৯৫৪ সালে প্রথম আরোহণের পর আজ পর্যন্ত অধরাই ছিলো কেটুতে শীতকালীন আরোহণ। অসংখ্য অভিযান পরিচালিতো হলেও শীতকালে এ পর্বতে ৭,০০০ মিটার পার হতে পেরেছিলো মাত্র চারটি অভিযান। এগুলো হচ্ছে:

১৯৮৭/৮৮: পোলিশ-ব্রিটিশ-কানাডিয়ান অভিযান ৭,৩০০ মিটার

২০০২/২০০৩: নেটিয়া কেটু পোলিশ অভিযান ৭,৬৫০ মিটার

২০১১/২০১২: রাশিয়ান অভিযান ৭,২০০ মিটার

২০১৭/২০১৮: পোলিশ জাতীয় শীতকালীন অভিযান-৭,৬০০ মিটার

এবছরের কেটুর শীতকালীন অভিযান নিয়ে কম ঘটনা ঘটেনি। এই শীতে চারটি দল, চল্লিশ জন শেরপা, ৬০ জন বাঘা বাঘা পর্বতারোহী হাজির হন কেটুতে। এর মধ্যে সাম্প্রতিক সময়ের আলোচিত পর্বতারোহী নির্মল পূর্জা ঘোষণা দিয়েছিলেন, শীতকালীন অভিযান সফল না করে তিনি বেইজ ক্যাম্প ছাড়বেন না।

নানা ঘটনা-দূর্ঘটনার মধ্যে নেপালী শেরপাদের দলের সাথে যোগ দেন পূর্জা। তাদের ক্যাম্প ফোরে রেখে আসা জিনিসপত্র উড়িয়ে নিয়ে যাবার পর এবছর অসফল হতে যাচ্ছিলো মনে হচ্ছিলো। কিন্তু নেপালী কম্বাইনড দল হাল না ছেড়ে দিয়ে একদিন আগে ৭,৬০০ মিটারে রোপ বসাতে সক্ষম হয়। ফলে কালকে থেকেই সবার চোখ ছিলো এ অভিযানের দিকে।

হতাশ হতে হয়নি কাউকে। কাল রাত একটায় শুরু হওয়া সামিট পুশে আজ পাকিস্তানের সময় একটায় সামিটে পৌছানোর কথা ছিলো। ঠিক সামিটের ১০ মিটার নিচে অপেক্ষা করে সবাইকে এক হওয়ার সুযোগ করে দিয়ে এক সাথেই সামিটে পৌছান নেপালী শেরপাদের এদল। পাকিস্তানের স্থানীয় সময় ছিলো ১৬:৫৮ মিনিট। এখন সবার প্রার্থনা যাতে নিরাপদে নেমে আসতে পারে পুরো দল। 

পৃথক দূর্ঘটনায় কেটুতে মারা গেছেন এই প্রজন্মের সেরা পর্বতারোহী সার্গেই মিনগোটে। জিপিএসে তার পড়ে অস্বাভাবিক পতন দেখে জানা যায় দূর্ঘটনার কথা। ছবি দাওয়া শেরপা

পর্বতারোহণের ইতিহাসের এই সাফল্য নিয়ে যখন সারা পৃথিবীতের উচ্ছাস চলছিলো এর মধ্যেই ক্যাম্প ওয়ান থেকে এডভান্স বেইজ ক্যাম্পে ফেরার পথে পড়ে গিয়ে মারা গেছে পৃথিবীর অন্যতম সেরা পর্বাতারোহী সার্গেই মিনগোটে। ৮,০০০ মিটার পর্বতারোহণ স্পেশালিস্ট নামে খ্যাত সার্গেইকে বলা হয় এ প্রজন্মের অন্যতম সেরা পর্বতারোহী। মাত্র ১,০০০ দিনের মধ্যে ১৪ টি ৮,০০০ মিটার পর্বতারোহণের প্রচেষ্টায় সার্গেই এর মধ্যেই ৭ টি সম্পন্ন করে ফেলেছিলেন।

ফিচার ছবি: নির্মল পূর্জার টুইটার থেকে।

About Muhammad Hossain Shobuj

Check Also

যুব উন্নয়নের বিকল্প পথ নিয়ে Rope4 Adventure Course 4

যুব উন্নয়নের বিকল্প পথ নিয়ে কাজ করার লক্ষ্যকে সামনে নিয়ে Rope4 আয়োজন করতে যাচ্ছে Adventure …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *