Breaking News

প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে আমা-দাবলামের শীর্ষে বাবর আলী

পেশায় ডাক্তার, আর নেশায় পাহাড়ি, নিজেকে এভাবেই পরিচয় দিতে পছন্দ করেন বাবর আলী। একেধারে সাইক্লিস্ট, ম্যারাথন রানার, পর্বতারোহী বাবর আলীর ঝুলিতে আগে থেকেই রয়েছে অনেকগুলো কৃতিত্ব। ভারতের নেহুরু ইনস্টিউট অফ মাউন্টেইন থেকে শেষ করেছিলে পর্বাতরোহণের কোর্স।  হিমাচল প্রদেশের ২০,০৭৮ ফিট উঁচু মাউন্ট ইউনামে উড়িয়ে বাংলাদেশের পতাকা। এবার আরো একধাপ এগিয়ে ২২,৩৪৯ ফিট আমা দাবলামের শীর্ষে পৌছালেন তিনি।

নেপালের খুম্বু রিজিওনে অবস্থিত আমা-দাবলাম পৃথিবীর অন্যতম চ্যালেঞ্জিং চূড়া। ৬,৮১২ মিটার এ পর্বতকে সম্মানের চোখে দেখে পৃথিবীর বাঘা বাঘা পর্বতারোহীরা। ১৯৬১ সালে স্যার এডমন্ড হিলারী নের্তৃত্বে এ পর্বতের চূড়ায় প্রথমবারের মতো পৌছাতে পারেন মাইক গিল, গ্যারি বিশপ ও মাইক ওয়ার্ড। অভিযাত্রী দলের দলনেতা হয়েও এডমন্ড হিলারী আমা দাবলাম সামিট করতে পারেননি মূলত নেপাল সরকারের অনুমতি লাভের জটিলতায়।

আমা-দাবলামের কুখ্যাত ইয়োলো টাওয়ার ছবি উইকিমিডিয়া

যারা পর্বত সম্পর্কে খোঁজ খবর রাখেন তারা হয়তো অনেকেই আমা দাবলামের বিখ্যাত ইয়োলো টাওয়ারের ছবি দেখেছেন, যেখানে অসম্ভব খাঁড়া (প্রায় ৮০ ডিগ্রী) পর্বতের অংশে তাঁবু ফেলে পর্বতারোহীরা। ২০,০০০ ফিট উচ্চতায় ক্যাম্প টুতে মাত্র ৭-৮ টি তাঁবু ফেলার মতো জায়গা থাকে। আমা দাবলাম শব্দের অর্থ মায়ের গলার হার,  এর দুই দিকের ছড়ানো রীজের বরফের মালার মতো মনে হয় বলে এই নামকরণ করা হয়।

মাউন্ট ইউনামের শীর্ষে বাবর আলী সংগৃহীত ছবি

বাংলাদেশ থেকে এর আগে ২০১৮ সালে আমা দাবলাম অভিযান পরিচালনা করেন দুইবারের এভারের বিজয়ী এম এ মুহিত। কিন্তু প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে শেষ পর্যন্ত সামিট না করেই ফিরে আসেন তিনি। অনেক পর্বতারোহীই মনে করে আমা দাবলাম এভারেস্ট আরোহণের চেয়ে কঠিন। এর কারণ হচ্ছে প্রতিকূল আবহাওয়া ছাড়াও এ পর্বতে বেশি কিছু ট্যাকনিক্যাল ক্লাইম্বিং রয়েছে। এজন্য অনেক পর্বতারোহী এভারেস্ট অভিযানের পর আমা দাবলামে অভিযানে আসেন।

অনেকদিন ধরেই নিজেকে প্রস্তুত করছিলেন বাবর আলী সংগৃহীত ছবি

বর্তমান আবহাওয়া পর্বতারোহণের উপযোগী হলেও ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে আবহাওয়া খারাপ হয়ে যাবার সম্ভাবনা ছিলো। এর মধ্যেই বাবর আলী ও তার বন্ধু বীরে তামাং সামিট সম্পন্ন করে আজ ক্যাম্প ১ এ নেমে এসেছেন। একই দলে থাকা শেরপা আগে নেমে এসে বাবর আলীর সামিটের তথ্য বেইজ ক্যাম্পে দিয়েছেন। আগামীকাল ভোরের আলোতে দলটি বেইজ ক্যাম্পে নেমে আসলে বিস্তারিত সকল তথ্য জানা যাবে।

ছবি উইকিমিডিয়া

About Muhammad Hossain Shobuj

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ থেকে মাস্টার্স শেষ করে পরবর্তীতে আইবিএ থেকে এক্সিকিউটিভ এমবিএ করেছেন। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি উন্নয়ন সংস্থায় কাজ করেন। লেখালেখিটা শখের কাজ, ঘোরাঘুরিও। এ পর্যন্ত দেশের ৬৩ টি জেলা ও ১২ দেশে ঘুরেছেন।

Check Also

বিদেশি পর্যটক টানার স্বপ্ন ও বাস্তবতা: পর্যটন দিবসের ভাবনা ২০২২

কিছুদিন আগে রাঁধুনী গুড়ো মশলার ব্র‌্যান্ডের আর্থিক সহায়তায় গুণী চলচ্চিত্রকার মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীর তৈরী করা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *